Wellcome to National Portal
বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
Text size A A A
Color C C C C

সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৪ August ২০২২

বায়োটেকনোলজি বিভাগ

 

বিভাগের নাম

বায়োটেকনোলজি বিভাগ

বিভাগীয় প্রধানের নাম ও পদবী

ড. মোঃ ইমতিয়াজ উদ্দিন

মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা

বিভাগীয় প্রধানের ছবি

বিভাগের বর্ণনা (সর্বনিম্ন ২৫০ শব্দ)

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষনা ইনস্টিটিউট এর বায়োটেকনোলজি বিভাগ টিস্যু কালচার, এন্থার কালচার, , জিন আইসোলেশন, জিন ক্লোনিং, জিন ট্রান্সফরমেশন, মার্কার এসিস্টেড ব্যাক ক্রসিং জিন পিরামিডিং ইত্যাদি প্রযুক্তির মাধ্যমে ঘাত সহিঞ্ছু উচ্চফলনশীল এবং উচ্চপুষ্টিমান সম্পন্ন ফসলের জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন করে চলেছে।

কৃষিক্ষেত্রে বৈশ্বিক ঘাত ও প্রতিকূলতা মোকাবেলার লক্ষে ২০১০ সালে Strengthening Research and Development of Sub-stations (SRSD) প্রকল্পের মাধ্যমে পৃথক করে বায়োটেকনোলজি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হয়।

বর্তমানে এই বিভাগে রয়েছে বাংলাদেশের অন্যতম আধুনিক দুইটি গবেষণাগার। এই গবেষণাগার গুলোতে রিয়েল টাইম পিসিআর মেশিন, থারমাল পিসিআর মেশিন, সেন্ট্রিফিউজ মেশিন, -৮০ ও -২০ ফ্রিজার, স্পেকট্রোফটোমিটার, কোয়ান্টিফায়ার মেশিন,  গ্রোথ চেম্বার, জেল ইলেক্ট্রোফরোসিস মেশিন, জেল ডকুমেন্টেশন মেশিন, ফ্রিজ ড্রায়ার মেশিন, প্রিসিয়াস ওয়েট মেশিন, পার্টিকেল বোম্বারটমেন মেশিন, ল্যামিনার এয়ারফ্রো ইত্যাদি আধুনিক গবেষণা যন্ত্রপাতি। এছাড়াও টিস্যু কালচার ও এন্থার কালচারের জন্য রয়েছে গ্রোথ রুম। যার মাধ্যমে আধুনিক সকল গবেষণার সুযোগ রয়েছে।  এই সকল মেশিন ব্যবহার করে টিস্যু কালচার, এন্থার কালচার, জিন আইসোলেশন, জিন ক্লোনিং, জিন ট্রান্সফরমেশন, জিন এক্সপ্রেশন এবং মার্কার এসিস্ট্যাড ক্রসিং/ ব্যাক ক্রসিং সহ বিভিন্ন বায়োকেমিক্যাল এনালাইসিস করা সম্ভব।

উদ্ভাবিত বিনাধান-২২ ও বিনাধান-২৪ বায়োটেকনোলজি বিভাগের বিজ্ঞানীদের অন্যতম সাফল্য যাদের উদ্ভাবনে প্রধান গবেষক হিসেবে ছিলেন ড. মোঃ ইমতিয়াজ উদ্দিন। বিনাধান-২২ একটি স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন প্রিমিয়াম কোয়ালিটির আমন জাত যার গড় ফলন ৬.১ টন/হেক্টর। বিনাধান-২৪ উচ্চফলনশীল, স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন, আলোক অসংবেদনশীল ও লম্বা ও মাঝারি চিকন দানা বিশিষ্ট ধানের জাত। যার সর্বোচ্চ ফলন ৯ টন/ হেক্টর।

নিজস্ব গবেষনার পাশাপাশি বায়োটেকনোলজি বিভাগ বিভিন্ন দেশী ও বিদেশী কৃষি ও বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এমএস ও পিএইচডি গবেষনায় সহায়তা করে যাচ্ছে। দেশের খাদ্য নিরাপত্তার লক্ষে বিনা’র বায়োটেকনোলজি বিভাগ অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

ম্যান্ডেট

টিস্যু কালচার, এন্থার কালচার, জিন আইসোলেশন, জিন ক্লোনিং, জিন ট্রান্সফরমেশন, মার্কার এসিস্টেড ব্যাক ক্রসিং, জিন পিরামিডিং ইত্যাদি প্রযুক্তির মাধ্যমে ঘাত সহিঞ্ছু উচ্চফলনশীল এবং উচ্চপুষ্টিমান সম্পন্ন ফসলের জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন।

সাফল্য (উল্লেখযোগ্য জাত/প্রযুক্তি)

বিনাধান ২২ (স্বল্প জীবনকাল, প্রিমিয়াম কোলালিটির চাল ও উচ্চফলশীল আমন জাত) এবং বিনাধান- ২৪ (স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন উচ্চ ফলনশীল বোরো জাত)।

জনবল

সিএসও ১ জন, পিএসও ১ জন, এসএসও ৩ জন, এসও ২ জন, এসএ ২ জন, এলএ ১ জন (আউটসোর্সিং) এবং এফএ ১ জন (আউটসোর্সিং)

আন্তর্জাতিক কার্যক্রম

Universiti Kebangsaan Malaysia (UKM) এর সাথে MoU এর মাধ্যমে গবেষণা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।