Wellcome to National Portal
বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
Text size A A A
Color C C C C

সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৪ ডিসেম্বর ২০২২

বিনার অর্জন ও সাফল্য

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা)

বাকৃবি চত্বর, ময়মনসিংহ-২২০২

অর্জন :

 

বিনা এ যাবৎ ধান, পাট, গম, ডাল, তেলবীজ, সব্জি ও মসলা জাতীয় শস্যের ১৮টি ফসলের উচ্চ ফলনশীল এবং উন্নত গুনাবলী সম্পন্ন ১১৯টি জাত উদ্ভাবন করেছে। ফসলের উন্নত এ জাতগুলো ছাড়াও ডাল ও শিম জাতীয় তেল ফসলের নাইট্রোজেনের বিকল্প হিসেবে ইনস্টিটিউট থেকে ১০টি জীবাণুসার উদ্ভাবন করা হয়েছে। বর্তমানে ছোলা, মসুর, চিনাবাদাম, সয়াবিন, মুগ, মাষকলাই, বরবটি ও ধৈঞ্চা’র জীবাণুসার ইনস্টিটিউট থেকে তৈরি এবং সরবরাহ করা হচ্ছে। এ সকল জীবাণুসার প্রয়োগে সয়াবিনে ৭৫-১৫০%, অন্যান্য ডাল ও শিম জাতীয় শস্যে ২০-৪৫% পর্যন্ত ফলন বৃদ্ধি পায়। জীবাণূ সার প্রয়োগ করলে ইউরিয়া সার দেয়ার প্রয়োজন হয় না। ফসফো-ভার্মিকম্পোস্ট ব্যবহারের মাধ্যমে মৃত্তিকার স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং ফসফেটিক সারসহ অন্যান্য রাসায়নিক সারের সাশ্রয় হয়। এছাড়াও বিনা অদ্যাবধি ৫৭ (সাতান্ন) টি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে ।

বিনা উদ্ভাবিত ফসলের জাতসমূহ :

ফসলের জাত

জাত

জাতের সংখ্যা

১। ধান (২৫টি)

ক) আউশ জাতের ধান

০২টি

খ) আমন জাতের ধান

১৪টি

গ) বোরো জাতের ধান

০৯টি

২। গম (০১টি)

০১টি

৩। তেল জাতীয় ফসল (৩১টি)

ক) সরিষা

১১টি

খ) চিনাবাদাম

১০টি

গ) সয়াবিন

০৬টি

ঘ) তিল

০৪টি

৪।  ডাল জাতীয় ফসল (৩৬টি)

ক) মসুর

১২টি

খ) মুগ

১০টি

গ) ছোলা

১১টি

ঘ) মাষ

০২টি

ঙ) খেসারী

০১টি

৫। উদ্যানতাত্ত্বিক ফসল (২৩টি)

ক) টমেটো

১৩টি

খ) লেবু

০৩টি

গ) পিঁয়াজ

০২টি

ঘ) মরিচ

০২টি

ঙ) হলুদ

০১টি

চ) রসুন

০১টি

৬। আঁশ জাতীয় ফসল (০৩টি)

ক) পাট

০৩টি

মোট উদ্ভাবিত ফসলের জাত সংখ্যা =

১১৯টি

৭। বিনা উদ্ভাবিত জীবাণুসার

 

১০টি

৮। বিনা উদ্ভাবিত প্রযুক্তি

 

৫৭টি

 

 বিনা উদ্ভাবিত উল্লেখযোগ্য কিছু প্রযুক্তিসমূহ:

  • প্রধান প্রধান শস্য পরিক্রমায় সমন্বিত পুষ্টি ব্যবস্থাপনা
  • ধান ভিত্তিক শস্য পরিক্রমায় ফসফেট সারের ব্যবস্থাপনা
  • ধান চাষে নাইট্রোজেন সারের ব্যবস্থাপনা
  • ফসফেটিক জীবাণু সার
  • লবণাক্ত জমিতে গম চাষ
  • মাটিতে দস্তার প্রয়োজনীয়তা নির্ণয়
  • পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে বরেন্দ্র এলাকার জন্য নতুন শস্য পরিক্রমা
  • আর্সেনিকমুক্ত পানি উত্তোলনের জন্য অগভীর নলকূপ স্থাপন
  • ধানগাছ কর্তৃক আর্সেনিক শোষণ এবং মাটি-উদ্ভিদে আর্সেনিকের স্থানান্তর
  • লবণাক্ত এলাকায় ফসলের  সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা
  • সমন্বিত ব্যবস্থাপনায় টমেটোর ঢলে পড়া রোগ দমন
  • রোগ প্রতিরোধী শস্য জাত উদ্ভাবন ও বিস্তার
  • মাটির স্বাস্থ্য সেবা
  • লবণাক্ত এলাকায় সূর্যমুখী, ভূট্টা ও সয়াবিন চাষে সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা
  • লবণাক্ত এলাকায় ফারো রোপন পদ্ধতি
  • লবণাক্ত এলাকায় গম চাষে সেচ ‍ ও পানি ব্যবস্থাপনা
  • মাল্টার কলম করার কলাকৌশল
  • সফেদার বংশবিস্তার কলাকৌশল

পুরস্কার সম্মাননা :

বিনা’র বিজ্ঞানীগণ দেশে ও বিদেশে তাদের সফল ও যুগোপযোগী গবেষণা কর্মকান্ডের জন্য সর্বত্র সমাদৃত হয়েছেন। বিনা এ পর্যন্ত ৩১টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার ও সম্মাননা  লাভ করেছে। এর মধ্যে স্বাধীনতা পদক-২০১৯ সহ জাতীয়ভাবে ২২টি এবং আন্তর্জাতিকভাবে ০৯টি পুরস্খার ও সম্মাননা অর্জন করে।

  • কৃষি গবেষণায় প্রাতিষ্ঠানিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরুপ ইনস্টিটিউট কর্তৃক ১৩৮৬ বঙ্গাব্দ (১৯৭৯-৮০খ্রি.) সালের কৃষি উন্নয়নে ‘‘রাষ্ট্রপতি পুরষ্কার ’’ লাভ ।
  • কৃষি গবেষণা ও কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৩৮৭ (১৯৮০-৮১) ও ১৩৮৮ (১৯৮১-৮২) সালে ‘‘রাষ্ট্রপতি পুরষ্কার ’’ লাভ ।
  • কৃষি গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরুপ ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম এর নেতৃত্বে বায়োটেকনোলজি বিভাগ, বিনা কর্তৃক ২০১৩ সালে কৃষি মন্ত্রণালয় হতে ‘‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরষ্কার- ১৪১৮’’ (রৌপ্য পদক) লাভ ।
  • কৃষি গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক ২০১৪ খ্রি. কৃষি মন্ত্রণালয় হতে ‘‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার- ১৪১৯’’ স্বর্ণ পদক লাভ ।
  • কৃষি গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক ‘‘জাতীয় পরিবেশ পদক-২০১৬’’ স্বর্ণ পদক অর্জন ।
  • কৃষি গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক ‘‘স্বাধীনতা পদক-২০১৯’’ অর্জন ।
  • ফুড সিকিউরিটিতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৪ সালে ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম (প্রাক্তন মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এবং বর্তমান মহাপরিচালক) এর জাতিসংঘের FAO-IAEA হতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ‘‘ Outstanding Achievement’’ লাভ ।
  • কৃষি গবেষণায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক ২০১৬খ্রি. ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক হতে ‘‘IDB Prize 2016 for Science and Technology’’ পুরষ্কার লাভ ।
  • লবণ ও জলমগ্নতা সহনশীল ধানের জাত উদ্ভাবনের স্বীকৃতিসরূপ আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (IRRI) কর্তৃক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এবং প্রধান, উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগকে ২০১৮ সনে সম্মাননা প্রদান ।
  • মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শামছুন্নাহার বেগম কর্তৃক কৃষি গবেষণায় মিউটেশন ব্রিডিং এর স্বীকৃতিসরূপ ২০২১ সালে ‘‘Women in Plant Breeding Award” of FAO-IAEA of the United Nations পুরষ্কার লাভ ।
  • মিউটেশন ব্রিডিং এর মাধ্যমে ফসলের জাত উদ্ভাবনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বিনা ২০২১ সালে “Outstanding Achievement Award” অর্জন করে ।